নারী-পুরুষের যৌন সমস্যার কারণ ও প্রাকৃতিক চিকিৎসা

হাকীম মিজানুর রহমান :
বিবাহিত নারী ও পুরুষদের মধ্যে নানা প্রকার যৌন সমস্যা রয়েছে। এর মধ্যে পুরুষের যৌন সমস্যার প্রধান হচ্ছে ইরেকটাইল ডিজফাংশন। এটি পুরুষের পেনিসের উত্থানগত সমস্যা। নানা কারণে এ সমস্যা হয়। যেমন- দুঃশ্চিন্তা, হরমোনের অভাব, অত্যাধিক হস্তমৈথুন ইত্যাদি।

আবার অনেকের প্রস্রাবের আগে বা পরে বীর্য বের হয়ে যায়। সামান্য চাপ লাগলেও বীর্যপাত ঘটে। অনেকের সামান্য কামনাতেও বীর্যপাত ঘটে থাকে।

মহিলাদের মধ্যে রয়েছে, কামত্তোজনার অভাব, যৌনাঙ্গে ব্যথা, ইনফেকশন হওয়া, সাদা স্রাব বা লিকোরিয়া, যৌনাঙ্গে ঘা, যৌনাঙ্গে চুলকানি, সন্তান না হওয়া ইত্যাদি।

এসব সমস্যা একটু সচেতন হলেই সমাধান করা যায়। সচেতন হলে দুঃচিন্তা রোধ, হরমোনজাত খাবার গ্রহণ ও হস্তমৈথুন পরিহার করে এসব সমস্যার সমাধান করা যায়। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে চিকিৎসারও প্রয়োজন হয়। সেসব ক্ষেত্রে সমস্যা জিইয়ে না রেখে চিকিৎসকের পরামর্শ মতে ঔষধ সেবন করা দ্রুত প্রয়োজন।

মহিলাদের মধ্যে উপরে বর্ণিত সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে সব সময় গরম পানি দিয়ে যৌনাঙ্গ ধৌত করা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা, অধিক পুরুষের সাথে সহবাস না করা কর্তব্য। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে একান্ত সমস্যায় চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করা প্রয়োজন হয়। যদি যৌনাঙ্গ ঘা বা চুলকানি হয় তাহলে দ্রæত চিকিৎসকের পরামর্শ মতে ঔষধ সেবন করা কর্তব্য।

আধুনিকতার বিস্তার যত বেশি, সমস্যা ও সম্ভাবনার পরিমাণও বেশি। আমরা প্রতিনিয়ত যে খাবার খাই তা স্বাস্থ্যকর কি-না বেশিরভাগ মানুষই তা জানি না। আমাদের শরীরকে ভালো রাখার জন্যে প্রয়োজন পর্যাপ্ত স্বাস্থ্যকর খাবার, পানি গ্রহণ করা। খাবার গ্রহণে অপরিণামদর্শিতার জন্যে আমাদের রোগ-ব্যারাম লেগেই থাকে। তাই কোন খাবারের কী গুণাগুণ আমাদেরকে তা জানতে হবে এবং কোন খাবারে কী পরিমাণ ক্যালরি আছে, আমাদের শরীরে প্রতিদিন কত ক্যালরি গ্রহণ করা দরকার তা আমাদেরকে জানতে হবে।

কিছু কিছু রোগ রয়েছে, যা ভিটামিন, আয়রণের অপর্যাপ্ততার জন্যে হয়। তাই আমাদের প্রতিদিন সুষম খাবার গ্রহণ করতে হবে। যাতে আমাদের শরীর প্রয়োজনীয় পরিমাণ পুষ্টি পায়। পুষ্টির অভাবে আমাদের অনেক রোগের বিস্তার ঘটে।

মাদক ত্যাগ করতে হবে। যে খাবার শরীরের জন্যে অপ্রয়োজনীয় তা পরিহার করতে হবে। পরিমাণ মতো পানি পান করতে হবে, যাতে আমাদের শারীরিক ক্রিয়াকলাপ সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন হয়।

ডায়াবেটিস থাকলে তা নিয়ন্ত্রণ রাখবেন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে যেসব খাবার খাবেন : ভাত (অল্প পরিমাণ), গ্রিন টি, করলা, মেথি, জামরুল, পেয়ারা, আমলা জাতীয় ফল (যেমন আমলকি), আপেল, দুধ, দুধের সর, মাখন, কলা, রসুন, মধু, গাঁজর, শসা, মুরগীর মাংস, খেজুর, ডিম, কালো জিরা, জাম, কারীপাতা, চা বা কফিতে চিনির পরিবর্তে মধু পান করতে পারবেন।

ডায়াবেটিস নিম্নোক্ত খাবার খাবেন না : অ্যালকোহল, চিনি, ভাজাপোড়া খাবার, টক জাতীয় খাবার, বাাসি খাবার, বিড়ি-সিগারেট, কোক-পেপসি জাতীয় পানীয় প্রভৃতি।

ইরেকটাইল ডিজফাংশন-এর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পথ্য : মধু, কালোজিরা, বাদাম, শসা বা খিরা, খেজুর, আপেল, দুধ, দুধের সর, মাখন, কলা, রসুন, কফি, বিট, গাঁজর, মুরগীর মাংস, ডিম প্রভৃতি। এসব পথ্যাদি শরীরে যৌন হরমোন তৈরি করে। সন্তান ধারণে সহায়তা করে।

যৌ’ন সমস্যার ক্ষেত্রে প্রতিদিন কমপক্ষে দু’চামচ মধু, এক চামচ কালোজিরা, কমপক্ষে একশত গ্রাম বাদাম, দু’তিনটি শসা, রসুনের ভর্তা, ডিম প্রতিদিন ১টি, কলা ১-২টি। ৮-১০টি খেজুর খাবেন। একমাস সেবনে ভালো ফল পাবেন। সহবাস করবেন সপ্তাহে একদিন।

ইরেকটাইল ডিজফাংশন-এর ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত খাবার খাবেন না : গরুর গোশস্ত, অ্যালকোহল, পুদিনা পাতা, কৃত্রিম চিনি, ভাজাপোড়া খাবার, টক জাতীয় খাবার, বাাসি খাবার।

রোগীর অবস্থা শুনে ও দেখে সারাদেশের যে কোনো জেলায় বিশ্বস্ততার সাথে কুরিয়ার সার্ভিসে ঔষধ পাঠানো হয়।

 

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)

(শতভাগ বিশ্বস্ত ও প্রতারণামুক্ত অনলাইন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান)

ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার

হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর।

যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত)

01960-288007

01762-240650

01834-880825

01777-988889 (Imo/whats-app)

শ্বেতী রোগ, যৌন রোগ, ডায়াবেটিস,অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা),ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর , আলসার, টিউমার, বাত-ব্যথা, দাউদ-একজিমা ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

You might like