আমাদের জামিল হোসেন…

হাসান সাইদুল, বিনোদন প্রতিবেদক :
এখন আসছেন হাসান হাট বাবুনগর নোয়াখালী বাংলাদেশ থেকে জামিল হোসেন। এক বাক্যের হৃদয়কে আপ্লুত করা বাণী অনেকের কাছে এখনও খুব পরিচিত। হ্যা, সত্যিই পরিচিত এ বাক্য কলকাতায় জনপ্রিয় উপস্থাপক মীর আফসার যার জন্য বলতেন তিনি আমাদের সবার প্রিয় জামিল হোসেন। দর্শকদের হাসাতেন তখন, পরবর্তিতে উপস্থাপনাও শুরু করেন তিনি। এখন তিনি জাত অভিনেতা। জাত অভিনেতার একটি নৈপূণ্যতা থাকে। সেই নৈপূর্ণতার অধিকারী জামিল হোসেন। খুব কম সময়ে জনপ্রিয় হওয়া যে কয়জন অভিনেতা বাংলাদেশে আছেন তার মধ্যে প্রথম সারির প্রথম দিকেই নাম আসবে তার।

এটি এ লিখুনীতে নয় বরং জামিল হোসেন অভিনীত নাটক দেখেই বোধ করা যাবে। আরও সহজ ভাবে বোঝা যাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সহযোগিতা নিলে। টেলিভিশনে নাটক প্রকাশের পর পরই ইউটিউবে নাটক প্রকাশ করা হয়। যার ফলে দর্শক খুব সহজেই মনের মাধুরী মিশিয়ে তাদের মতামত এবং প্রিয় অভিনেতা সম্পর্কে কিছু লিখতে পারেন। আর সেই লেখালেখি থেকে প্রমাণ মেলে জামিল হোসেন সত্যিই তো জনপ্রিয়। এ জনপ্রিয়তা মুখে মুখে নয় বরং জামিল তার অভিনয় দিয়ে বার বার প্রমাণ করেছেন। কম সময়ে নিজের বেশ কয়েকটি চরিত্র এরই মধ্যে দর্শক হৃদয়ে স্থায়ী করতে সক্ষম হয়েছেন।

যারা বাংলা নাটক দেখেন তাদের মধ্যে কাউকে যদি প্রশ্ন করা হয় নাটকে একজন পশু ডাক্তারের নাম বলেন নিশ্চয় তারা ছায়াবিবি নামে ধারাবাহিক নাটকের সেই পশুর ডাক্তার অর্থ্যাৎ এনিমেল খানের কথাই বলবেন আর সেই এনিমেল খান আমাদের জামিল হোসেন। শুধু কি তাই। টেলিভিশনে প্রচার চলতি একাধিক ধারাবাহিক নাটকেও চলছে তার জনপ্রিয় চরিত্রের কারিশমা। তুমুল ভাবে গ্রহণ হওয়া এ অভিনেতাকে প্রশ্ন করা হয়- এ জগতে কেনো আসলেন? তিনি বলেন, ‘আনএসপেক্টেড বিষয়টি এখন এসপেক্টেড হয়ে গেছে। পর্দায় যে মানুষগুলোর অভিনয় দেখে আনন্দ পেতাম এখন তাদের সঙ্গে অভিনয় করি! এটা তো কখনও ভাবিনি। আর অভিনয় আসবো এটি তো কখনই ভাবিনি।’

তবে এখন অভিনয় করেন কেনো, অনেক পেশাই তো আছে? এমন প্রশ্নের জবাবে হাসেন জামিল! বলেন, ‘দর্শকদের ভালোবাসা পাচ্ছি। ব্যস্তও খুব এ মাধ্যমে পাশাপাশি উপার্জনের একটি উৎসও তো হয়ে গেলো। তাই অভিনয় করছি। তবে সবচেয়ে মজার বিষয়টি হচ্ছে অভিনয়ের প্রতি ভালোবাসা আছে আমার, খুব ভালোবাসা।’ তিনি আরও বলেন, ‘ অভিনয় করি, পাশাপাশি উপস্থাপনাও করতাম। গানও করি। শিগগিরই দর্শকদের জন্য এ বিষয়ে সু খবর আছে। আশা করছি দর্শক বিনোদিত হবেন।’

বিনোদন মাধ্যমে আছেন, গান গাওয়া অভিনয় করা, উপস্থাপনাও করা হলো। পরিচালনা কিংবা প্রযোজনা নিয়ে কোনো ভাবনা আছে কি না জানতে চাইলে জামিল মনের অকপটে বলে ওঠেন। এ মাধ্যমে যেহেতু কাজ করছি। পরিচালনা এবং প্রযোজনার আসনেও নিজকে দেখতে চাইবো তবে এখনই তা নয়। এখনও শেখার অনেক বাকী। অভিনয়টাও ঠিক মতো শেখা হয়নি। শিখতে শিখতে যতদূর যেতে পারি।’ অনেকেই তো আপনাকে নাটকের বরপুত্র খ্যাত মোশাররফ করিমের বিকল্প মানে। এ নিয়ে আপনার ভালোর বিষয় জানতে চাই শুনতেই জামিল কিছুটা আতকে ওঠেন। বার বার অনুরোধ করেন, ‘মোশাররফ করিম ভাইয়ার সঙ্গে আমার তুলনা নয়।’ এটি ভুল হবে। তিনি অসাধারন অভিনেতা এবং অসাধারন মানুষ। তার সঙ্গে আমার তুলনা কিংবা তার বিকল্প আমাকে ভাবা আমার কাছে কেমন কেমন বিষয় যেনো। তবে মানুষ আমার অভিনয় দেখে আনন্দ পান এটি যখন ইউটিউবে দেখি কিংবা দর্শকদের মন্তব্য পড়ি ভালোই লাগে। আসলে এটিই তো একজন অভিনেতার ভালো লাগা।’

এ অবস্থানে এসে কোনো খারাপ লাগা আছে কী জানতে চাইলে জামিল হোসেন বলেন, ‘এখন পর্যন্ত সুস্থ আছি, নিজেই মনের মতো করে চলছি। বেশ আছি। তাই কোনো খারাপ লাগা নেই। স্বস্থিতে আছি।’ অভিনেতা জামিলের খারাপ লাগা না থাকলেও দর্শকের মধ্যে একটা খারাপ লাগা নয় বরং অভিমান থাকতে পারে একটি সু খবরের অপেক্ষায়। কবে নাগাদ বিয়ের সংবাদ দর্শক জানতে পারবে- জানতে চাইলে জামিল হাসেন। হাসতে হাসতে বলেন, ‘বিয়ে করলেই তো করা হয়ে যা। বিয়ে যদি করে নিতাম তাহলে তো আজ তুমি প্রশ্ন করতে না। তবে এ প্রশ্ন যেনো না করতে হয় সেভাবে কাজ করবো। অর্থাৎ দর্শকদের সুখবর দিবো শিগগিরই তবে এ শিগগিরের কোনো সময় সীমা নেই বলেই জামিল আবারও হাসেন।’

জামিল বর্তমানে একাধিক ধারাবাহিক নাটক অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত আছেন। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচার হচ্ছে। একের অধিক ধারাবাহিক নাটক প্রচারের অপেক্ষায় আছে। অভিনয় করছেন খণ্ড নাটকেও। মুক্তির অপেক্ষায় আছে তার একটি মিউজিক ভিডিও। এ অভিনেতা শিগগিরই সক্রিয় হবেন ইউটিউবেও।

আমরা সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাসী, প্রিয় সময় গুজব প্রচার করে না

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রি. ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ সফর ১৪৪২ হিজরি, সোমবার

You might like