‘ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি বাড়িয়ে মৃত্যুদণ্ডের বিষয়টি বিবেচনা করছে সরকার’

ধর্ষণের শাস্তি যাবজ্জীবন থেকে বাড়িয়ে মৃত্যুদণ্ড করতে সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

বুধবার (০৭ অক্টোবর) সকালে বনানীতে সময় সংবাদকে এ কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জনগণের দাবি বিবেচনা না করে উপায় নেই। বিষয়টিকে ইতিবাচক দাবি করে আইনজীবীরা বলছেন, ধর্ষকদের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হলে সমাজ থেকে কিছুটা হলেও অপরাধ কমে আসবে।

দেশজুড়ে বার বারই নারীর প্রতি সহিংসতার প্রতিবাদে উঠে এসেছে ধর্ষকের সর্বোচ্চ সাজা ফাঁসির দাবি। সিলেটে এমসি কলেজে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও নোয়াখালীতে গৃহবধু নির্যাতনের পর সে দাবি আরো জোরদার হয়েছে।


সাধারণ মানুষের দাবির সঙ্গে সুর মিলিয়ে রাস্তায় নেমেছেন ক্ষমতাসীন দলের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও। এরই মধ্যে মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী সময় সংবাদকে জানান, জনগণের দাবি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে সরকার।

আইনজীবীরা বলেন, যাবজ্জীবন সাজার মেয়াদ শেষ হলে জেল থেকে বেরিয়ে অনেক সময় একই অপরাধে আবারও জড়ায় অপরাধীরা। তাই মৃত্যুদণ্ড অপরাধের মাত্রা কিছুটা হলেও কমাবে।

দ্রুত ধর্ষণের সাজা ফাঁসির আইন পাশের পাশাপাশি আলাদা ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি তাদের।

আমরা সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাসী, প্রিয় সময় গুজব প্রচার করে না

০৭ অক্টোবর ২০২০ খ্রি. ২২ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪২ হিজরি, বুধবার

You might like