মনপুরায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ঘুমন্ত অবস্থায় গূহবূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ 

মনপুরা প্রতিনিধি :
ভোলার মনপুরা শূন্য ঘরে ডুকে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ উঠেছে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি এনাম হাওলাদার(২৮) এর বিরুদ্ধে । ৪নং দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে মৃত আওয়ামী লীগ ফরাজীর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

এনাম হাওলাদার হলেন দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার একমাত্র ছেলে।

গতকাল (১১ফেব্রুয়ারি)বৃহস্পতিবার  রুনা বেগম(২৭)কে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ উঠেছে। রুনার স্বামী আবদুল হক ফরাজী  জানান, গতকাল ঢালী মার্কেট মাহফিল চলছে। আমি রুনাকে ও আমার ২বছরের সন্তানকে শূন্য ঘরে রেখে যাই।কিন্তু শূন্য ঘর পেয়ে এনাম হাওলাদার আমার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

গৃহবধূর ভাষ্যমতে জানা যায়  ,রাত অনুমানিক ১০টার সময় ঘুমন্ত অবস্থায় শূন্য ঘরে ডুকে অস্ত্র ও বসয় ভিত দেখিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় পরে সে ডাক চিৎকার করলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।সুট পেয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় ঘর থেকে বের হয়ে যায়।তাঁর ডাক চিৎকার শুনে পাশের ঘরে থেকে লোকজন চলে আসলে সে পালিয়ে যায়।

এমন ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় বসে। এছাড়া সাম্প্রতিক কিছুদিন আগে  প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চালায় বলে অভিযোগ উঠেছিল এলাম হাওলাদারের বিরুদ্ধে। ক্ষমতার অপব্যবহার করে নানা অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের অনেক নেতা কর্মীরা জানান তার এমন আচরণে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। এছাড়া আতঙ্ক রয়েছে এলাকাবাসী। তারা বলেন দলের হাইকমান্ড যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

রুনার শাশুড়ি বলেন,পারিবারিকভাবে একটা সমাধান হওয়ার চেষ্টা চলছে । উপযুক্ত বিচার না পেলে আমরা আইনের আশ্রয় গ্রহণ করব।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহাবুদ্দিন মেম্বার বলেন,গতরাতে এই ঘটনা ঘটেছে বলে আমায় জানিয়েছে আমি তাৎক্ষণিক তাদের বাসায় এসে ঘটনা জানতে পেরে পারলাম যে এনাম হাওলাদার আব্দুল হক ফরাজীর শূন্য ঘরে ঢুকে তার স্ত্রীকে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।বিষয়টি  সম্পূর্ণ সত্য বলে আমি জেনেছি।

You might like