বহু প্রতীক্ষার পর সংস্কার হলো চাঁদপুর আন্তঃজেলা পৌর বাস টার্মিনাল সড়ক

কবির হোসেন মিজি : বহু প্রতিক্ষার পর অবশেষে পুনঃ সংস্কার করা হলো চাঁদপুর শহরের আন্তঃজেলা পৌর বাস টার্মিনাল ও তার প্রবেশ মুখের প্রধান সড়কটি। যে সড়কটি দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে খানাখন্দকে একাকার হয়ে পড়ে ছিলো। গত কয়েক দিন পূর্বে সড়কটির পুনঃ সংস্কারের কাজ করতে দেখা গেছে।

জানাযায়, চাঁদপুর শহরের এ টার্মিনাল থেকে প্রতিদিন ঢাকা, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রায়পুর-লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, হাজীগঞ্জ, কচুয়া, মতলব, ফরিদগঞ্জ, শাহরাস্তি সহ বিভিন্ন জেলা এবং উপজেলার ছোট-বড় যাত্রীবাহী বাস ছেড়ে যাচ্ছে। অথচ শহরের এ জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটি এতদিন যাবৎ বেহাল অবস্থায় ছিলো।

সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বাস স্ট্যান্ড ফয়সাল শপিং কমেেপ্লক্সের সামনে এবং আন্তঃ জেলা পৌর বাস টার্মিনালের প্রবেশ মুখ হতে শুরু করে সড়কটির বিভিন্ন স্থানের ইট, বালু, কংক্রিট এবং পীচ ঢালাই উঠে গিয়ে ছোট এবং বড় আকারের অনেক গর্ত সৃষ্টি হয়ে তা খানা খন্দকে রূপান্তরিত হয়েছে।
আর সে ছোট-বড় গর্তগুলোতে একটু বৃষ্টি হলেই বৃষ্টির পানি জমে তাতে কাদা মাটি পানিতে একাকার হয়ে নোংরা পরিবেশ সৃষ্টি হতো। আবার রাস্তার এক পাশে বৃষ্টির পানি বিশাল জায়গা জুড়ে জমে থাকার কারণে অনেক সময় চালকরা পানির জন্যে রাস্তা না দেখায় গাড়ে নিয়ে তাদেরকে দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হয়েছিলো।

এ ব্যাপারে চালকদের ও অনেক অভিযোগ ছিলো। ওই সময় তারা বলেন, রাস্তার করুণ দশার কারণে আমরা অনেক সময় ঠিকমত গাড়ি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারিনি। এ জন্যে কিছু কিছু সময় ছোট-বড় দুর্ঘটনার মুখোমুখিও হতে হয়েছে আমাদেরকে।

আর এ সড়কটির ছোট-বড় গর্তগুলোর কারণে চাকা এবং ইঞ্জিনসহ গাড়িরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা হতো। সে সাথে গ্রাম এবং বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা যাত্রীদেরকেও অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। এখন এই গুরত্বপূর্ন সড়কটি মেরামত করায় আমরা অনেক কঠিন দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পেয়েছি। এজন্য আমরা কর্তৃপক্ষকের প্রতি অনেক অনেক কর্তৃজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

চাঁদপুর শহরের একমাত্র প্রধান বাস টার্মিনালে প্রবেশের এই গুরত্বপূর্ণ সড়কটি পুনঃ সংস্কার করার কারণে একদিকে যেমন যানবাহন চালকদের দুর্ভোগ কমেছে অন্যদিকে তার রূপ বদল হয়ে অনেক সৌন্দর্য সৃষ্টি হয়েছে। সড়কটি পুনঃ সংস্কার করায় তার যেমন সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সাথে সড়ক দিয়ে বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করছে তার আপন গতিতে।

You might like