লকডাউনে চাঁদপুর ট্রাফিক বিভাগের চলমান অভিযানে২১৮ টি গাড়ী আটক

কবির হোসেন মিজি :

লকডাউনে চাঁদপুর ট্রাফিক বিভাগের চলমান অভিযানে ২১৮ টি গাড়ী আটক করা হয়েছে। লকডাউনের শুরু থেকে গত কয়েকদিন ধরে শহরের বিভিন্ননস্থানে যানবাহনের ওপর অভিযান পরিচালনা করে চলেছে চাঁদপুর জেলা ট্রাফিক বিভাগ। লকডাউন অমান্য করে সড়কে গাড়ি চলাচল করায় ২১৮টি গাড়ি জব্দ করা হয়।
১৭ এপ্রিল ২১ এপ্রিল বুধবার পর্যন্ত শহরের বিভিন্নস্থান থেকে এসব গাড়ি জব্দ করা হয়।

জানাযায়, লকডাউনের প্রথম থেকে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনায় লকডাউনে সরকারি নির্দেশনা না মেনে সড়কে গাড়িতে যাত্রী বহন করায় চাঁদপুর শহরের জেলা পরিষদ, বিটি রোডের প্রবেশ মুখ, পালবাজার ও বঙ্গবন্ধু সড়কের পর্বমাথা সহ বিভিন্ন স্থানে ৪টি চেকপােস্ট ও ৬টি মোবাইল টিম বসিয়ে বিভিন্ন যানবাহন জব্দ করে ট্রাফিক পুলিশ।
লকডাউনে যাত্রীবহণ করায় ১৩৯টি ইজিবাইক, ৭৮টি সিএনজি স্কুটার ১টি মােটর সাইকেলসহ
মােট ২১৮টি গাড়ী জব্দ করা হয়েছে।
বুধবার বিকেলে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, এসব জব্দকৃত গাড়ী চাঁদপুর স্টেডিয়াম মাঠে দীর্ঘ লাইন সারি সারি করে রাখা হয়েছে।

চাঁদপুর জেলা ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) মাে. জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া
এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, লকডাউনে ১৭ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল বুধবার
বিকেল পর্যন্ত শহরের বাবুরহাট, জেলা পরিষদ, বিটি রোড, পালবাজার ও বঙ্গবন্ধু সড়কের পূর্বমাথা থেকে
জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনায় ট্রাফিক
পুলিশ এসব গাড়ী জব্দ করেন।

তিনি আরো জানান, মূলত লকডাউন না মেনে যাত্রী বহন করার কারনে শহরের বিভিন্নস্থানে চেকপােস্ট বসিয়ে এসব
গাড়ী জব্দ করা হয়েছে। করোনাকালে সাধারণ মানুষ এবং চালকদের সচেতন এবং সর্তক করতেই আমাদের এই কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে।
তবে এদেরকে ট্রাফিক আইনে কোন প্রকার জরিমানা করা হয়নি। মানবতার দিক বিবেচনা করে হয়তো কয়েকদিন শাস্তি দিয়ে কোন প্রকার জরিমানা ছাড়াই তাদের গাড়ী গুলো ছেড়ে দেয়া হবে।জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন এ বিষয়ে অবগত আছেন।

You might like