আশিকাটিতে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে অতর্কিত হামলায় নারী পুরুষসহ আহত ৩ : থানায় মামলা

স্টাফ রির্পোটার :

চাঁদপুর সদর উপজেলার আশিকাটি ইউনিয়নে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় নারী-পুরুষসহ ৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন স্বজনরা। ১৮ মে বুধবার সকালে ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ দক্ষিন আশিকাটি গ্রামের বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, ওই বাড়ির মৃত সিরাজ বেপারীর মেয়ে রাশিদা বেগম (৩৩), আকবর বেপারীর মেয়ে শারমিন আক্তার আঁখি (২৫) ও তার ছোট ভাই তারেক বেপারী (২১) আহতরা বর্তমানে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই ঘটনায় আহতরা মামলা করার জন্য চাঁদপুর সদর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আহতরা এবং তার পরিবারের লোকজন জানায়, বেপারী বাড়ির মৃত সিরাজ বেপারী ও হুমায়ুন কবির বেপারী গংরা দীর্ঘ কয়েক বছর পূর্বে বাড়িতে একটি মসজিদের জন্য জায়গা দান করেন। তাদের দানকৃত জায়গাতেই বাড়ির মসজিদ নির্মাণ করা হয়। মসজিদের আশেপাশে যেসব ফল ফলাদি বৃক্ষ রয়েছে এবং মসজিদের অন্যান্য ভালো-মন্দ বিষয়গুলো তারাই দেখ -ভাল করে আসছেন। কিন্তু বেশ কিছুদিন পূর্বে একই বাড়ির ইমান গাজীর পরিবারের লোকজন তাদের জায়গা জবর দখল করতে ভরাট করার জন্য ফাইলিং করার প্রস্ততি নেয়। এসময় আহতের পরিবারের লোকজন তাদেরকে বাঁধা প্রদান করলে অভিযুক্তরা তাদের সাথে ঝগড়া লিপ্ত হয়ে তাদেরকে মারধর করে। এনিয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

তারা জানান, ঘটনার দিন আহতরা তাদের নিজস্ব আম গাছ থেকে আম পাড়তে গেলে তাদের প্রতিবেশী ঈমান গাজীর স্ত্রী রিনা বেগম, তার মেয়ে নিলা আক্তার, ইতি আক্তার এবং টিটু গাজীর স্ত্রী সাজেদা বেগম ও তাদের আত্মীয় তাহের ভূঁইয়াসহ ছাদের উপর থেকে অতর্কিত ভাবে তাদেরকে এলোপাতাড়ি ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন।

তাদের ছুড়ে মারা ইট পাটকেলে রাশিদা বেগম, শারমিন আক্তার আখি এবং তারেক বেপারীর মাথা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়ে রক্তাক্ত জখম হয়ে গুরুতর ভাবে আহত হয়ে পড়েন। পরে স্বজনরা তাদেরকে সেখান থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনার পর ভুক্তভোগীরা মামলা করার উদ্দেশ্যে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিলে থানার এসআই কফিল উদ্দিন তদন্তের জন্য হাসপাতাল এবং ঘটনাস্থলে যান। এমন অতর্কিত হামলার ঘটনায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছেন ভুক্তভোগীরা।

You might like