দরজা বন্ধ না করেই পুশব্যাক, দুর্ঘটনার কবলে ড্রিমলাইনার

নিজস্ব প্রতিবেদক :

দরজা বন্ধ না করেই পুশব্যাক করায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সর্বাধুনিক উড়োজাহাজ বোয়িং-৭৮৭ ড্রিমলাইনার।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৪ নম্বর বোর্ডিং গেটে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী উড়োজাহাজটি।

বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, বিমানবন্দরের ৪ নম্বর বোর্ডিং গেটে ড্রিমলাইনারটি থেমে যাত্রী নামায়। এরপর সেটির কোনো ফ্লাইট না থাকায় বোর্ডিং ব্রিজ থেকে আলাদা করে পুশব্যাক করা হয়। কিন্তু বিমানের বোর্ডিং ব্রিজের সংযোগ না খুলেই বিমানটি পুশব্যাক শুরু করে।

সাধারণত বিমানের দরজা বন্ধ করে পুশব্যাক করা হলেও ড্রিমলাইনারটির দরজা বন্ধ না করেই পুশব্যাক করা হয়। এতে বিমানটির দরজার সঙ্গে বোর্ডিং ব্রিজের একটি টান লাগে। ফলে বোর্ডিং ব্রিজ ও বিমানের দরজা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এ বিষয়ে বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, বোর্ডিং ব্রিজ থেকে বিমান আলাদা করার সময় যেসব নিয়ম মানতে হয় সেগুলো মানা হয়নি। তাই ছোট দুর্ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বিমানের ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

বর্তমানে উড়োজাহাজটি বিমানের হ্যাঙ্গারে রাখা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে দুই সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিমান বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

গত ১০ এপ্রিল বিমানবন্দরে হ্যাঙ্গারে ঢোকানোর সময় ধাক্কা লেগে বিমান বাংলাদেশের দুটি উড়োজাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিমান দুটি হলো বোয়িং ৭৭৭ ও বোয়িং ৭৩৭। এ ঘটনায় বিমানের প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ারসহ (প্রধান প্রকৌশলী) পাঁচ কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে কর্তৃপক্ষ।

You might like